ভিসা খবর

লটারি ছাড়া কোরিয়া যাওয়ার উপায় ২০২৪

দক্ষিণ কোরিয়াতে শ্রমিকদের বেতন অনেক বেশি হওয়ায় সেখানে যাওয়ার আগ্রহ অনেকেই প্রকাশ করে থাকেন। বিভিন্ন সংস্থার মাধ্যমে বাংলাদেশ থেকে প্রায় প্রতিবছর ৫ থেকে ১০ হাজার লোক দক্ষিণ কোরিয়াতে কাজের উদ্দেশ্যে যায়। দক্ষিণ কোরিয়াতে যাওয়ার আগে বায়োসেলের ফি প্রদান করে যাওয়া অনেকটাই বাধ্যতামূলক।যারা দক্ষিণ কোরিয়া যেতে চান তাদেরকে অবশ্যই লটারি বাদে যেতে হলে ওয়ার্ক পারমিট ভিসা নিয়ে যেতে হবে। ওয়ার্ক পারমিট ভিসা কোন এজেন্সি বা এম্বাসির মাধ্যমে করে নিতে পারবেন। যারা লটারি ছাড়া কোরিয়া যাওয়ার উপায় খুজছেন তাদের জন্য আজকের পোস্টটিতে গুরুত্বপূর্ণ কিছু তথ্য তুলে ধরা হয়েছে। তাহলে চলুন দেরি না করে জেনে নেওয়া যাক:-

 

লটারি ছাড়া কোরিয়া যাওয়ার উপায় 

 

সরকারিভাবে যদি কোরিয়ায় যেতে হয় বা লটারি ছাড়া কোরিয়া যেতে হলেও কোরিয়ার ভাষা জানা লাগবে। ভাষা জানা না থাকলে ভিসা আবেদন করলেও পরবর্তীতে আপনার ভিসাটি প্রত্যাখ্যান করা হতে পারে। যারা লটারি ছাড়া দক্ষিণ কোরিয়া যেতে চান তাদের অবশ্যই নিম্নের কাজগুলো করা লাগবে। 

 

১.লটারি ছাড়া দক্ষিণ কোরিয়া যাওয়ার জন্য প্রথমে আপনাদেরকে সেখানকার ভাষা লিখতে ও বুঝতে জানতে হবে। 

২.আপনার শিক্ষাগত যোগ্যতার মান অবশ্যই এইচএসসি বা সমমানের হওয়া লাগবে। 

৩.অনলাইনের মাধ্যমেই আবেদন ফি পূরণ করে আবেদনের ফি জমা দিতে হবে। 

৪.দক্ষিণ আফ্রিকা যাওয়ার জন্য আপনি যোগ্য কিনা সেটা প্রমাণের জন্য স্ক্রিল টেস্ট নেওয়া হবে। পরীক্ষাগুলোতে সকল প্রার্থীদের অবশ্যই পাস করা লাগবে। 

৫. ভিসা ফরম জমা দেওয়া লাগবে। আপনারা দক্ষিণ কোরিয়া যাওয়ার জন্য অনুমোদন পেয়েছেন কিনা তা সেখানকার সরকার থেকে অনুমতি প্রাপ্ত হতে হবে। 

৬.বায়োসেল কর্তৃক যে ট্রেনিং এর আয়োজন করা হবে সেখানে অবশ্যই অংশগ্রহণ করা লাগবে। 

৭. আপনার ভিতরে যদি সব ধরনের দক্ষতা থাকে দক্ষিণ কোরিয়া যাওয়ার জন্য তাহলে শুধুমাত্র দক্ষিণ কোরিয়া যাওয়ার ভিসা পাবেন। 

 

লটারি ছাড়া দক্ষিণ কোরিয়া যাওয়ার আবেদন প্রক্রিয়া কবে শুরু হবে 

 

প্রতিবছরের শুরুতে লটারি ছাড়া দক্ষিণ কোরিয়া যাওয়ার বায়োসেলের মাধ্যমে আবেদন সার্কুলার ছাড়া হয়ে থাকে। লটারি ছাড়া দক্ষিণ কোরিয়া যাওয়ার সার্কুলারকে অনেকেই ভাষা সার্কুলার বলেও চিনে থাকেন। প্রতিবছর জানুয়ারি ও মার্চ মাসের দিকে লটারি ছাড়া দক্ষিণ কোরিয়া যাওয়ার জন্য সার্কুলার দিয়ে থাকে বায়োসেল। লটারি ছাড়া দক্ষিণ কোরিয়া বা ভাষা পারদর্শী সারকুলারে আবেদন করতে হলে আবেদন ফি ৩৬ হাজার টাকা দেওয়া লাগে। লটারি ছাড়া দক্ষিণ কোরিয়া যাওয়ার জন্য ভাষা শেখা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। 

লটারি ছাড়া দক্ষিণ কোরিয়া যাওয়ার আবেদন পদ্ধতি 

 

লটারি ছাড়া দক্ষিণ কোরিয়া যাওয়ার জন্য কিছু কাজ করতে হবে। এই কাজগুলোর মাধ্যমে খুব সহজেই আপনারা লটারি ছাড়া দক্ষিণ কোরিয়া যেতে পারবেন। যেমন:-

দক্ষিণ কোরিয়ার ভাষা শিখতে হবে 

 

দক্ষিণ কোরিয়া যাওয়ার জন্য ভাষা শেখা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। ভাষা না শিখে হয়তো অনেকেই দক্ষিণ কোরিয়া যেতে পারবেন কিন্তু সেখানে গিয়ে টিকে থাকতে হলে ও ভালো কিছু করতে হলে অবশ্যই দক্ষিণ কোরিয়ার ভাষা শেখা জরুরী। তাই লটারি ছাড়া দক্ষিণ কোরিয়া যেতে হলে সর্বপ্রথম আপনাদেরকে ভাষা শিখতে হবে। 

ভাষা পারাদর্শী হিসেবে আবেদন করতে হবে 

 

দক্ষিণ কোরিয়া যাওয়ার জন্য অবশ্যই ভাষা পারদর্শী হিসাবে আবেদন করতে হবে। অর্থাৎ দক্ষিণ কোরিয়া ভাষায় যখন দক্ষতা অর্জন করে ফেলবেন তখন লটারি ছাড়া কোরিয়া যাওয়ার জন্য আবেদন করতে পারেন। 

 

আবেদন ফি জমা দিতে হবে 

 

দক্ষিণ কোরিয়া যাওয়ার জন্য অবশ্যই আবেদন ফি জমা দেওয়া লাগবে। লটারি ছাড়া দক্ষিণ কোরিয়া যেতে হলে আবেদন ফি বাবদ ৩৫ হাজার টাকা জমা দেওয়া লাগবে। অনলাইনে মোবাইল ব্যাংকিং পরিষেবা গুলোর মাধ্যমে যেকোনো ব্যক্তি চাইলে আবেদন ফি জমা দিতে পারবেন। 

প্রবেশপত্র ডাউনলোড করতে হবে 

 

লটারি ছাড়া দক্ষিণ কোরিয়া যাওয়ার জন্য আবেদন করা হয়ে গেলে টাকা জমা দিয়ে ট্রানজেকশন আইডি সাবমিট দিয়ে প্রবেশপত্র ডাউনলোড করার অপশন এসে থাকে। তারপরে প্রবেশপত্র টি ডাউনলোড করে নিয়ে প্রিন্ট করে দিয়ে নিজের কাছে সংগ্রহ করে রাখতে হবে। 

ভাষা পারদর্শী পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করা লাগবে 

 

প্রতিবছর ভাষা পারদর্শী হিসেবে দক্ষিণ কোরিয়ায় যাওয়ার ইচ্ছুকদের উদ্দেশ্যে নিয়োগ দিয়ে থাকে। কেউ চাইলে উক্ত সার্কুলার অনুযায়ী দক্ষিণ কোরিয়া যাওয়ার জন্য আবেদন করতে পারবেন।আবেদন করার জন্য পাসপোর্ট প্রয়োজন হবে এবং বায়োসেলের মাধ্যমে আবেদন করা যাবে। তাছাড়া পরবর্তীতে ভাষা পারদর্শী পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে হবে। ভাষা পারদর্শী পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করার জন্য বায়োসেলের নির্দেশনা মেনে প্রবেশপত্র ও অন্যান্য ডকুমেন্ট সাথে নিয়ে বায়োসেলের হেড অফিসে নির্ধারিত সময়ের মধ্যে গিয়ে পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে হবে। 

 

স্কিল টেস্টে অংশগ্রহণ করতে হবে 

 

ভাষা পারদর্শী পরীক্ষা শেষ হয়ে যাওয়ার পর অবশ্যই স্কিল টেস্টে অংশগ্রহণ করতে হবে। এই ক্ষেত্রে প্রার্থীদের শারীরিক সক্ষমতা দেখা হবে এবং তাদের রং বোঝার ক্ষমতা চেক করা হবে। স্কিল টেস্ট পরীক্ষা শেষে আপনাদেরকে প্রাপ্ত রেজাল্ট দেওয়া হবে। পরীক্ষায় যদি ভালো রেজাল্ট হয়ে থাকে তাহলে আপনাকে এবার রোস্টার ভুক্ত হওয়ার জন্য অপেক্ষা করতে হবে। 

 

রোস্টার ভুক্ত হতে হবে 

 

লটারি ছাড়া কেউ যদি কোরিয়া যেতে চাই তাহলে এই পর্যায়ে বোয়োসেল কর্তৃক রোস্টার ভুক্ত করা হবে। তবে এক্ষেত্রে বোয়োসেল রোস্টার করার জন্য কারট মার্কের প্রয়োগ হয়ে থাকে। তাই এক্ষেত্রে আপনার পাশ মার্ক যদি ভাল হয় অর্থাৎ ১৪০ থেকে ১৫০ হয় তাহলে আপনাকে রোস্টারভুক্ত করা হবে। 

 

ভিসা ফরম জমা দিতে হবে 

 

লটারি ছাড়া দক্ষিণ কোরিয়া যাওয়ার জন্য বোয়োসেলের মাধ্যমে আপনাকে ভিসা ফরমের জন্য ব্যাংক ড্রাফট সহ আবেদনপত্র জমা দিতে হবে। তবে অবশ্যই এর সাথে নির্ধারিত ডকুমেন্ট এটাস্ট করে দিতে হবে। 

 

দক্ষিণ কোরিয়া মালিক কর্তৃক সিলেক্ট করা 

 

এবার আপনাদেরকে যে ধাপে নিয়ে আসা হল এই ধাপে সকল কাজ কোরিয়া মালিক কর্তৃক করা হয়ে থাকে। কোম্পানি মালিকের চাহিদা অনুযায়ী এইচআরডি কোরিয়া তাদের শ্রমিকদের সিভি প্রদান করে থাকে। তারপরে তাদের পছন্দ অনুযায়ী সিভির আবেদনকারীদের দক্ষিণ কোরিয়া যাওয়ার জন্য কলিং চলে আসে। 

 

বোয়েসেল কর্তৃক ট্রেনিংয়ে অংশগ্রহণ করতে হবে

 

দক্ষিণ কোরিয়া যাওয়ার জন্য যে সকল ব্যক্তিরা সিলেক্ট হবেন তাদের বোয়েসেলের মাধ্যমে দক্ষিণ কোরিয়া যাওয়ার আগে দুই সপ্তাহব্যাপী প্রশিক্ষণ দেওয়া হবে। আর এই প্রশিক্ষণ সম্পূর্ণ বোয়েসেলের অধীনে হবে। বোয়েসেলে তাদের ট্রেনিং সেন্টারে কোরিয়া ভাষা সংস্কৃতির ওপর ট্রেনিং প্রদান করবে। 

 

পরিশেষে দক্ষিণ কোরিয়া যাওয়ার জন্য দেশ ত্যাগ করতে হবে। এর জন্য বায়োসেলের মাধ্যমে নির্ধারিত দিনে নির্ধারিত ফ্লাইটে দক্ষিণ কোরিয়া যাওয়ার জন্য সুযোগ পাওয়া শ্রমিকদের দেশ ত্যাগ করতে হবে। তারপরেও লটারি ছাড়া কোরিয়া যাওয়ার উপায় এই নিয়ে কোন ধরনের প্রশ্ন থেকে থাকলে কমেন্টের মাধ্যমে জানাতে পারেন। ধন্যবাদ। 

সম্পর্কিত আর্টিকেল

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Back to top button

Notice: ob_end_flush(): failed to send buffer of zlib output compression (0) in /home/educarer/public_html/wp-includes/functions.php on line 5373