ভিসা খবর

ইন্দোনেশিয়া কাজের ভিসা পাওয়ার উপায়। ইন্দোনেশিয়া যেতে কত টাকা লাগে

ইন্দোনেশিয়া এশিয়ার একটি দেশ। ইন্দোনেশিয়াতে অনেকে কাজের ভিসা নিয়ে যায়। ইন্দোনেশিয়ায় কাজের ভিসায় যাওয়ার আগে অবশ্যই ইন্দোনেশিয়া সম্পর্কে কিছুটা ধারণা নিয়ে যেতে হবে।ইন্দোনেশিয়া কাজের ভিসা খুব সহজে পাওয়া গেলেও ইন্দোনেশিয়া যাওয়ার প্রসেস সম্পর্কে অনেকের ধারণা নেই। নিচে ইন্দোনেশিয়া কাজের ভিসা পাওয়ার উপায় ,ইন্দোনেশিয়া যেতে কত টাকা লাগে ও বাংলাদেশ থেকে ইন্দোনেশিয়া কত কিলোমিটার এই নিয়েই থাকছে আজকের পোস্টটি। 

 

ইন্দোনেশিয়া কাজের ভিসা পাওয়ার উপায় 

 

বাংলাদেশ থেকে ইন্দোনেশিয়াতে ওয়ার্ক পারমিট ভিসার মাধ্যমে যাওয়া যাবে। তবে ইন্দোনেশিয়াতে দুই ধরনের ওয়ার্ক পারমিট ভিসা পাওয়া যায়। প্রথমটি হলো কোন কোম্পানি সরাসরি কাজের জন্য ভিসা দিবে ও দ্বিতীয়টি হচ্ছে কোন এজেন্সির মাধ্যমে ইন্দোনেশিয়া ভিসা নিতে হবে। 

 

ইন্দোনেশিয়াতে কাজের জন্য সাধারণ কোন কর্মী বাংলাদেশ থেকে যেতে পারবেন না। ইন্দোনেশিয়াতে, ডাক্তার, ইঞ্জিনিয়ার, শিক্ষক, অথবা কোন প্রতিষ্ঠান থেকে ইংরেজি দক্ষতা সম্পন্ন কোন ব্যক্তি চাইলে ওয়ার্ক পারমিট ভিসা নিয়ে যেতে পারবেন। ইন্দোনেশিয়াতে যারা লো ক্যাটাগরির কাজের জন্য যেতে চান তারা চাইলে দোকানে হেল্পার, ক্লিনার, ও শপিংমলে কাজের জন্য যেতে পারবেন। 

 

তাছাড়া আরেকটি পদ্ধতিতে ইন্দোনেশিয়াতে গিয়ে কাজ করতে পারেন। ইন্দোনেশিয়াতে ট্যুরিস্ট ভিসা নিয়ে গিয়ে সেখানে গিয়ে জবের জন্য সিভি সাবমিট করতে পারেন এবং সেখানে যদি আপনি গৃহীত হন তাহলে কাজ করতে পারবেন। বাংলাদেশ থেকে চাইলে কোন ব্যক্তি ব্যবসা করার উদ্দেশ্যে বা ঘোরাঘুরির জন্য খুব সহজেই ইন্দোনেশিয়া যেতে পারেন কিন্তু সাধারণ মানুষ কোনভাবেই ওয়ার্ক পারমিট ভিসা নিয়ে সরাসরি ইন্দোনেশিয়া যেতে পারবেন না। এক্ষেত্রে অবশ্যই কোন এজেন্সির মাধ্যমে যেতে হবে ইন্দোনেশিয়া থেকে কেউ ভিসা পাঠালে।

ইন্দোনেশিয়া যাওয়ার জন্য কি কি ডকুমেন্ট লাগে 

 

সারা বিশ্বের অনেক দেশ থেকে অনেক মানুষ ইন্দোনেশিয়াতে এসে থাকেন। কেউ কাজের উদ্দেশ্যে এসে থাকেন আবার কেউ ঘোরাঘুরির উদ্দেশ্যে ইন্দোনেশিয়া এসে থাকেন। তবে যেভাবে ইন্দোনেশিয়া আসুন না কেন অবশ্যই আপনার কাছে একটি বৈধ ভিসা থাকতে হবে। বৈধ ভিসা ছাড়া কোনভাবেই ইন্দোনেশিয়া আসতে পারবেন না। নিচে ইন্দোনেশিয়া যাওয়ার জন্য কি কি ডকুমেন্ট লাগে তা উল্লেখ করা হলো:-

১.ইন্দোনেশিয়ার যাওয়ার জন্য অনলাইনে আবেদন ফরম পূরণের প্রিন্ট কপি লাগবে। 

২.সদ্য তোলা দুই কপি পাসপোর্ট সাইজের ছবি প্রয়োজন হবে। 

৩.যে এজেন্সির মাধ্যমে ভিসা আবেদন করতে চান সেই এজেন্সিকে চিঠি দিতে হবে। 

৪.আপনার পাসপোর্টের মেয়াদ অবশ্যই ছয় মাস বা তার বেশি হতে হবে। 

৫.কোন কোম্পানি থেকে যেতে চাইলে সেই কোম্পানির ট্রেড লাইসেন্স ও ফটোকপি প্রয়োজন হবে। 

৬.আপনার ব্যাংক স্টেটমেন্টের ফটোকপি লাগবে। 

 

তাছাড়া আর যদি প্রয়োজনীয় কোন কাগজপত্র দরকার পড়ে থাকে তাহলে এজেন্সির মাধ্যমে সেটা জেনে নিতে পারবেন। 

ইন্দোনেশিয়া যেতে কত টাকা লাগবে

 

যারা ইন্দোনেশিয়াতে ওয়ার্ক পারমিট ভিসা ব্যবসার উদ্দেশ্যে যেতে চান তাদের অনেক কম টাকা খরচ হয়ে থাকে অন্যান্য দেশের তুলনায়। বাংলাদেশ থেকে যারা ইন্দোনেশিয়াতে যেতে চান তাদের খরচ হবে ২৫ থেকে ৩৫ হাজার টাকার মধ্যে। আর যদি অনেক আগে টিকিট কেটে থাকেন তাহলে খরচ আসতে পারে ৪০ থেকে ৫০ হাজার টাকার মধ্যে। ইন্দোনেশিয়াতে কাজের ভিসায় ভিসা প্রসেসিং সহ সব কিছু সম্পূর্ণ করতে ২ লক্ষ টাকার মত খরচ আসতে পারে। 

 

বাংলাদেশ থেকে ইন্দোনেশিয়া কত কিলোমিটার

 

বাংলাদেশ থেকে ইন্দোনেশিয়া কত কিলোমিটার এই বিষয়ে অনেকের জ্ঞান নেই। বাংলাদেশ থেকে ইন্দোনেশিয়ার দূরত্ব ৭১৪৯ কিলোমিটার এর কাছাকাছি। বাংলাদেশ থেকে ইন্দোনেশিয়া যেতে সময় লাগবে ১৫১ ঘণ্টার মতো। 

 

ইন্দোনেশিয়ার মুদ্রার নাম কি। বাংলাদেশের ১ টাকা ইন্দোনেশিয়ার কত টাকা 

 

ইন্দোনেশিয়ার মুদ্রার নাম হলো রুপিয়াহ।বাংলাদেশের ১ টাকা সমান ইন্দোনেশিয়ার ১৪০ রুপিয়াহ।ইন্দোনেশিয়ার 1000 টাকা বাংলাদেশের কত টাকা যারা জানেন না তাদের বলে রাখা ভালো বাংলা ইন্দোনেশিয়ার ১০০০ টাকা সমান বাংলাদেশি ৭ টাকার কিছু বেশি। 

 

উপসংহার: ইতিমধ্যে ইন্দোনেশিয়া কাজের ভিসা পাওয়ার উপায় ও ইন্দোনেশিয়া যেতে কত টাকা লাগে পোস্টটি যারা মনোযোগ সহকারে পড়েছেন এই বিষয়ে মোটামুটি ধারণা পেয়েছেন । তারপরেও ইন্দোনেশিয়া কাজের ভিসা সম্পর্কিত কোন প্রশ্ন থাকলে কমেন্ট করে জানাতে পারেন। ধন্যবাদ। 

সম্পর্কিত আর্টিকেল

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

এটিও দেখুন
Close
Back to top button

Notice: ob_end_flush(): failed to send buffer of zlib output compression (0) in /home/educarer/public_html/wp-includes/functions.php on line 5373